করোনার বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী লড়াইয়ে লাগাতার সাহায্যের জন্য ভারত এবং মোদীকে ধন্যবাদঃ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(হু)

8

বাংলাদেশ, ব্রাজিল-সহ বিশ্বের একাধিক দেশে ইতিমধ্যে করোনাভাইরাস টিকা পাঠিয়েছে ভারত। টিকা পাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকাও। তারইমধ্যে করোনাভাইরাস মহামারীর বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী লড়াইয়ে যেভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে নয়াদিল্লি, সেজন্য ভারত এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ জানালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) প্রধান টেডরোস ঘেবরেসাস।

একটি টুইটবার্তায় তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী লড়াইয়ে লাগাতার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় ভারত এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ। আমরা যদি একসঙ্গে কাজ করি, তথ্য ভাগ করে নিই, তাহলেই এই ভাইরাসকে রুখতে পারব। মানুষের জীবন এবং জীবিকা বাঁচাতে পারব।’

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। তার সপ্তাহখানেকের মধ্যে থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনা টিকা পাঠানো শুরু করেছে ভারত। ‘প্রতিবেশী প্রথম’ নীতিতে ইতিমধ্যে টিকা পেয়ে গিয়েছে বাংলাদেশ (২০ লাখ ডোজ), নেপাল (১০ লাখ ডোজ), ভুটান (১৫ লাখ ডোজ) এবং মলদ্বীপ (১০ লাখ ডোজ)। মায়ানমার, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা, মরিশাসের মতো দেশেও টিকা পাঠানো হচ্ছে। সেই প্রক্রিয়াকে ‘টিকা মৈত্রী’ নামও দেন মোদী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, আরও টিকা কেনার জন্য সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার (এসআইআই) সঙ্গে চুক্তিও করেছে ঢাকা। সেরামের করোনা টিকা কোভিশিল্ড ইতিমধ্যে ব্রাজিলে পৌঁছে গিয়েছে। জানুয়ারির শেষের দিকে এবং ফেব্রুয়ারির গোড়ার দিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় টিকা পাঠানোর ছাড়পত্র পেয়ে গিয়েছে সেরাম। মরক্কোতেও গিয়েছে টিকা।

মোদীও জানিয়েছেন, করোনা মহামারীর মোকাবিলায় সমগ্র মানবজাতিকে সাহায্য করার জন্য ভারত নিজের টিকা উৎপাদন এবং বণ্টন ক্ষমতার ব্যবহার করবে। সঙ্গে তিনি জানান, সুস্থ বিশ্বের জন্য যা করণীয়, তা করতে রাজি ভারত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here