‘এখন থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখুন।’: শুভেন্দু অধিকারী

31

খেজুরির হেড়িয়াতে মমতার নন্দীগ্রামের সমাবেশের পাল্টা সভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী। কড়া আক্রম শানালেন তৃণমূল নেত্রীকে। রীতিমত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখার পরামর্শ দেন শুভেন্দু।

কী বলেছেন শুভেন্দু?

* ‘গতকাল মাননীয়ার সভাকে আমি হায়দ্রাবাদরে সভা বলে মনে করি। তিনি কোথায় সভা করছেন তা জানেন না। পাঁচ বছর পর পর নন্দীগ্রাম আসেন। ভোট এলেই মনে পড়ে যায়। তাই সব গুলিয়ে যাচ্ছে। শহিদ ভরত মণ্ডলকে বলছেন ভারত মণ্ডল। আমাকে পাতা দেখে শহিদের নাম বলতে হয় না।’

‘কী বলতে এসেছিলেন? কত মিথ্যা বলবেন? অষ্টম শ্রেণির পাঠ্যপুস্তকে নন্দীগ্রামের একটা লাইন নেই। নন্দীগ্রামকে আপনি সম্মান করেন না। অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারকে জামিনে ছাড়িয়েছেন।’

* ‘দেখে মনে হচ্ছে মাননীয়া রাজনৈতিক হতাশগ্রস্ত।’

* ‘কোম্পানিতে মঞ্চ থেকে প্রার্থী ঠিক হয়। তৃণমূলে মাননীয়া ও তাঁর ভাইপো যা বলিবেন তাহাই হইবে। বিজেপিতে হয় না। ‘

* ‘দু’জায়গায় দাঁড়ালে চলবে না। দু’জায়গায় আমরা আপনবাকে দাঁড়াতে দেব না। আপনাকে নন্দীগ্রামেই দাঁড়াতে হবে।’

* ‘এখন থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখুন।’

* ‘আপনি কার ভরসায় নন্দীগ্রামে দাঁড়াবেন? হিসাব তো সব আমার জানা। গ্রামগুলোকে আমি চিনি। ৬২ হাজারের ভরসায়? পদ্ম তো জিতবে ২ লাখ ১৩-র ভরসায়। ২ লাখ ১৩ কারা- জয়শ্রীরাম বলে যারা। ৬২ হাজারেও সিঁধ কাটব। আমরা লড়তে জানি। নন্দীগ্রামে আমরাই জিতব। মমতা ব্যানার্জী হারবে হারবে হারবে।’

* ‘অনবরত মিথ্যা কথা বলছেন মাননীয়া। উনি সেদিন নন্দীগ্রামে ঢুকতে পারেননি। নিরাপদ স্থানে গিয়ে বসেছিলেন। তাই বিজেপির সরকার আসবে। মিথ্যা শ্রী পুরস্কার দেব, আর সেটা প্রথম পাবে মমতা ব্যানার্জী। আরেকটা তোলা শ্রী পুরস্কার হবে। সেটা পাবে ওঁর ভাইবো। তোলাবাজ অভিষেক ব্যানার্জী। তোলাবাজ ভাইপো হটাও। গরু চোর, কয়লা চোর, বালি চোর ভাইপো হটাও।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here