সুপারি কিলার দিয়ে নিজের মেয়েকে খুন

22

ওড়িশার বালাসোর জেলায় সুপারি কিলার দিয়ে খুন করলেন মা নিজ সন্তানকে। মৃতের নাম শিবানী নায়েক। বয়স ৩৬। বিবাহিত হলেও শ্বশুরবাড়িতে থাকতেন না তিনি। বাবা মায়ের বাড়ির কাছাকাছি একটি বাড়িতে থাকতেন।  বালাসরের সাব ডিভিশনাল পুলিশ প্রভাষ পাল জানায় বেশ কিছু বছর ধরেই বেআইনি মদ্য পাছার ব্যবসায় যুক্ত ছিলেন। এই ভাবেই খরচ চলতেন।

মা সুকুরি গিরি। বয়স ৫৮। মেয়ের এমন কাজকে সমর্থন করতে পারেননি কখনোই। সম্পর্কও খারাপ হয়ে গিয়েছিল। তাই জানা যায় প্রমোদ জেনা নামে একজন সুপারি কিলারকে মোট পঞ্চাশ হাজার টাকা দেন। মেয়েকে খুন করাতে। আগাম  আট হাজার টাকা দিয়েছিলেন।

প্রমোদ জেনা আগের থেকেই চিনত শিবানী কে। কাজ দেওয়ার ছল করে নির্জন জায়গায় ডেকে তিন জন মিলে মাথায় ভারী জিনিস দিয়ে মেরে খুন করে। নাগ্রাম গ্রামের একটি সেতুর তলায় পাওয়া যায় মৃত অবস্থায় শিবানীকে। ঘটনাটি ঘটে ১২ই জানুয়ারি।

জানা গিয়েছে প্রমোদ জেনা বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে। কিন্তু বাকি দুই জনকে এখনও ধরা যায়নি। পুলিশ এর খোঁজ খুব শীঘ্রই পাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here