বৃক্ষরোপণ-জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অযোধ্যায় মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ২৬ জানুয়ারি

18
মসজিদের নকশা

সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে বিচার চলাকালীন অযোধ্যায় প্রস্তাবিত মসজিদের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হচ্ছে। এরই মধ্যে নকশাও তৈরি করা হয়েছে।তবে এবারে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে। আগামী ২৬ জানুয়ারি চারাগাছ রোপণ এবং ভারতের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে হবে বহু প্রতীক্ষিত মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন। শনিবার সেই অনুষ্ঠানের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করেছে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড দ্বারা গঠিত ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশন (আইআইসিএফ)।

গত বছর অযোধ্যা মামলার রায় জানায় সুপ্রিম কোর্ট। তাতে অযোধ্যার ওই বিতর্কিত জায়গায় রামমন্দির নির্মাণের পাশাপাশি মসজিদ নির্মাণের জন্য অন্যত্র পাঁচ একর জমির বন্দোবস্ত করতে নির্দেশ দেওয়া হয়।  তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির  হাতে মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হয়ে গেলেও, মসজিদ নির্মাণ নিয়ে তেমন সাড়াশব্দ শোনা যায়নি। 

তবে  সেই নীরবতা ভেঙেছে।  অযোধ্যায় মসজিদ তৈরির দায়িত্বে থাকা ইন্দো ইসলামিক কালচারার ফাউন্ডেশন  মসজিদ চত্বরের নীল-নকশা প্রকাশ করেছে শনিবার। তাতে দেখা যায়, ঐতিহ্য মেনে মসজিদের মাথায় বিশালাকার গম্বুজ থাকলেও, তা  পাশ্চাত্য স্থাপত্যের আদলে তৈরি করা হচ্ছে। মসজিদের মূল ভবনটিও আধুনিক স্থাপত্যেরই নিদর্শন। মসজিদ চত্বরে থাকছে পার্কিংয়ের ব্যবস্থাও। 

প্রস্তাবিত হাসপাতালটির যে নকশা তুলে ধরা হয়েছে, শহরের দালানগুলো তার কাছে ফিকে। মসজিদ প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা মুখ্য আর্কিটেক্ট এসএম আখতার বলেন, ‘‘হাসপাতালে ৩০০ বেডের ব্যবস্থা থাকবে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের আনা হবে। মসজিদে একসঙ্গে মানুষ নমাজ পড়তে পারবেন। গোটা মসজিদটি সৌরশক্তিচালিত হবে। মসজিদের ভিতরের তাপমাত্রা বাড়ানো-কমানোর ব্যবস্থা থাকবে।’’ এ ছাড়াও মসজিদের জন্য বরাদ্দ পাঁচ একর জমিতে কমিউনিটি কিচেন এবং গ্রন্থাগার নির্মাণ করা হবে বলে জানান তিনি। দুঃস্থ মানুষদের সেখানে দু’বেলা খাওয়ার ব্যবস্থাও থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here