BCCI-এর বার্ষিক সভার আগেই মোতেরা স্টেডিয়ামে আজ মুখোমুখি সৌরভ বনাম জয় শাহ!

74

আজ মোতেরায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় একাদশ বনাম জয় শাহ  একাদশের প্রদর্শনী ম্যাচ হতে চলেছে। যেখানে আঠাশ জন বোর্ড সদস্য খেলবেন দু’টো টিমের হয়ে। এবং তার পর আগামী বৃহস্পতিবার, অর্থাত্‍ ২৪ ডিসেম্বর, বোর্ডের বার্ষিক সভা। শোনা গেল, পুরোটাই হালকা মেজাজে ভাবা। বৈঠকে বরং গুরুগম্ভীর বিষয়টিষয় আছে। যা খবর, তাতে দশ টিমের যে আইপিএল  করার যে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল, তাতে সিলমোহর পড়ে যেতে পারে বৃহস্পতিবারের বোর্ড বৈঠকে। তবে সেটা কবে থেকে করা সম্ভব, তা নিয়ে একটা ধোঁয়াশা আছে। প্রথমে শোনা গিয়েছিল, আগামী এপ্রিলের আইপিএল থেকেই দশ দলের হতে পারে। কিন্তু এখন যা পরিস্থিতি, সেটা পিছিয়ে ২০২২ হতে পারে। কারণ, দেশে করোনা পরিস্থিতি এখনও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আইপিএল শেষ পর্যন্ত কী ভাবে আয়োজন হবে, তা নিয়ে একটা প্রশ্নচিহ্ন আছে। এর মধ্যে দশ টিমের আইপিএল করতে হলে অন্তত গোটা কুড়ি ম্যাচ বেড়ে যাবে। তা ছাড়া পূর্ণ নিলাম করতে হবে। তাই ভাবা হচ্ছে, আগামী বছরটা ছেড়ে দিয়ে, তার পরের বছর থেকে দশ দলের আইপিএল করা যায় কি না?

অনেকগুলি বিষয় উঠবে ২৪ ডিসেম্বরের সভায়। প্রথমত, অ্যাডিলেডে ভারতীয় দলের ৩৬ রানে শেষ হয়ে যাওয়া। দ্বিতীয়ত, সামনের আইপিএলে কয়টি দল খেলবে, সেই ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া। আসন্ন ইংল্যান্ড সফরে নিয়ে আলোচনা। নতুন তিন নির্বাচক কারা হবেন, সেই নিয়েও কথা হবে বৃহস্পতিবারের ভারতীয় বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভায়। সর্বোপরি আরও একটি বিষয় মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট পদে থেকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কীভাবে সংস্থার নিজস্ব স্পনসরের প্রতিপক্ষ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিজেকে জড়ালেন। যাঁকে নিয়ে বিতর্ক, তাঁর নাম যেহেতু সৌরভ, সেই কারণে বোর্ডের সকল কর্তারাও জানেন তিনি কীভাবে ওইসব বিষয়গুলিকে পাশ কাটিয়ে ফের সভা আলোময় করে দেবেন, সেটি তিনিই জানেন। কারণ ক্যারিশমায় সৌরভ বাকিদের দশ গোল দেবেন, তাঁর সেই গুণ সম্পর্কে সবাই অবহিত। গত তিনদিন ধরেই তিনি আহমেদাবাদে রয়েছেন, তার মানে এমন কিছু তাঁর মাথায় রয়েছে যেটিতে তিনি সকলকে স্টান্ট করে দেবেন। এমন এক আবহের মধ্যেই আজ বুধবার নবনির্মিত মোতেরা স্টেডিয়ামে কোনও ক্রিকেট ম্যাচ হতে চলেছে। এই ম্যাচের একটি দলের অধিনায়ক সৌরভ স্বয়ং, অন্য দলের নেতা আবার বোর্ড সচিব জয় শাহ, যিনি কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অমিত শাহর পুত্র। বিশ্বের সর্ব বৃহত্‍ স্টেডিয়াম হিসেবে স্বীকৃতি পেয়ে গিয়েছে আমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়াম। এই মাঠেই কিন্তু সেঞ্চুরি করে প্রথম পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছিলেন বিরাট কোহলি। মোতেরা স্টেডিয়ামে একসঙ্গে ১ লাখ ১৪ হাজার দর্শক বসে খেলা দেখতে পারবেন। এই দর্শকাসন কোথাও নেই, সে লর্ডস হোক বা ইডেন, কিংবা ব্রিসবেন বা অ্যাডিলেড, বা ওভাল ক্রিকেট গ্রাউন্ড। এই মাঠে ব্যাট হাতে নামতে দেখা যাবে সৌরভকে। আবারও ভারতের অন্যতম সেরা বাঁহাতিকে স্টেপ আউট করে বাপি বাড়ি যা.. ঢঙে ছক্কা হাঁকাতে দেখা যাবে। ম্যাচ রেফারি হিসেবে থাকবেন বিসিসিআই-র বর্ষিয়ান কর্তা ভাইস প্রেসিডেন্ট কংগ্রেস নেতা রাজীব শুক্লা। এই ম্যাচে খেলবেন বোর্ডের সব আধিকারিকরা, এমনকি দেখা যেতে পারে কয়েকজন নামী প্রাক্তনদেরও। মাঠের খেলা তো আকর্ষণের, পাশাপাশি বোর্ডের সভায় কয়েকটি বিষয় এতই জ্বালাময়ী আকার ধারণ করতে পারে যে বাইশগজের লড়াইকে সেখানে ‘শিশু’ মনে হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here