কোভিড-১৯এর কারণে বাতিল সংসদের শীতকালীন অধিবেশন

38

করোনাভাইরাস অতিমারীর কারণে এইবার সংসদের শীতকালীন অধিবেশন হচ্ছে না। জানালো সরকার। সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী বলেছেন, সমস্ত রাজনৈতিক দল অধিবেশন বাতিলে সমর্থন জানিয়েছে কোভিড সংক্রমণ ছড়ানো রুখতে ও সরাসরি জানুয়ারিতে বাজেট অধিবেশনে চলে যেতে।

কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীর দাবির প্রেক্ষিতে একটি চিঠিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অধীর দাবি করেছিলেন, নয়া কৃষি আইন নিয়ে আলোচনার জন্য অধিবেশন ডাকার। লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা জোর দিয়েছিলেন আইনে সংশোধনী আনার, যেগুলি সরকার সংসদে পাস করিয়ে নিয়েছিল।

মন্ত্রী জবাব দিয়েছেন, তিনি সব দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন, সবাই একমত হয়েছেন যে কোভিড-১৯এর কারণে অধিবেশন না ডাকার। দীর্ঘ দেরির পর সেপ্টেম্বরে বাদল অধিবেশন ডাকা হয়েছিল। সেটি অন্যতম সফল অধিবেশন ছিল যা্তে টানা ১০ দিনে ২৭টি বিল পাস হয়েছিল।

এর মধ্যেই ছিল ৩টি কৃষি আইন যা নিয়ে বর্তমানে কৃষক বিক্ষোভ চলছে।

অতিমারী ব্যবস্থাপনায় শীতের মাসগুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কেননা বিশেষ করে দিল্লিতে এই সময়ে সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে। যোশী লিখেছেন কংগ্রেস সাংসদকে।

“বর্তমানে আমরা ডিসম্বরের মা্ঝামা্ঝি রয়েছি এবং একটি কোভিড টিকা দ্রুত আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। আমি বিভিন্ন দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা চলতি অতিমারী নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ও শীতকালীন অধিবেশন বাতিল করার পক্ষে মত দিয়েছেন। পরবর্তী অধিবেশন যত আগে সম্ভব ডাকতে চায় সরকার। ২০২১এর জানুয়ারিতে বাজেট অধিবেশন হওয়া উপযুক্ত, কোভিড-১৯ অতিমারীতে অভূতপূর্ব পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে,” চিঠিতে লিখেছেন যোশী অধীরকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে।

সংবিধান অনুযা্য়ী ৬ মাসের মধ্যে সংসদের অধিবেশন বসতেই হবে। বাজেট অধিবেশন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে বসতে পারে ১লা ফেব্রুয়ারি বাজেট ঘোষণার আগে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here