CAA অপ্রয়োজনীয়,এর প্রয়োজন ছিল না : হাসিনা

বাংলাদেশ বরাবর মেনে এসেছে CAA আর NRC ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এমনকী সরকারি ভাবে ভারত সরকার এনআরসি'র রূপায়ণ অভ্যন্তরীণ ক্ষেত্রেই করেছে

81
sheikh-hasina-CAA

নিউজ ডেস্ক: CAA নিয়ে তিনি যে অসন্তুষ্ট, প্রথমবার মুখ খুলেই তা স্পষ্ট করে দিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর মন্তব্য, এ ধরনের আইনের কোনও প্রয়োজন ছিল না। সেইসঙ্গে অবশ্য তিনি CAA-কে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলেও উল্লেখ করেছেন।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর রাজধানী আবুধাবিতে গালফ নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শেখ হাসিনা বলেছন, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে ভারত সরকার কী করতে চাইছে, তা তিনি বুঝতে পারছেন না। তাঁর মন্তব্য, ‘কেন ভারত সরকার এই ধরনের আইন করল, তা বুঝতে পারছি না। এটার প্রয়োজন ছিল না।’

সিএএ নিয়ে দেশজুড়ে বিতর্ক চলছে। রাজ্যে রাজ্যে চলছে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ। এর মধ্যেই এই প্রথম বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী, যা কেন্দ্রীয় সরকারকে অস্বস্তিতে ফেলবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন: ‘স্বাধীন সাংবাদিকতা মানে সরকারকে খুশি করা নয়’, বিজেপি নেতাকে জানাল ওয়াশিংটন পোস্ট

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ভারতে পাড়ি দেওয়া কেউ বাংলাদেশে ফিরে এসেছে, এমন ঘটনার কথা তাঁর জানা নেই। তবে ভারতে এঁদের অনেকে সমস্যার মধ্যে রয়েছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি। শেখ হাসিনার মতে, বাংলাদেশ সব সময়ই মনে করে সিএএ এবং এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ। অক্টোবরে দিল্লি সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ব্যক্তিগতভাবে তাঁকে এ বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন বলে জানিয়েছেন হাসিনা। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের দীর্ঘ সুসম্পর্কের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here