দাঁত পড়ে গেছে বলে এখন মাংস খাওয়ার বিরোধিতা করছেন তৃণমূল নেতারা:দিলীপ ঘোষ

তৃণমূল সরকারের মন্ত্রীদের আক্রমণ করেন দিলীপবাবু। বলেন, ‘সিদ্ধার্থ শংকর রায়ের জমানায় ওরা কী করেছিলেন? এখন রক্ত ঠান্ডা হয়ে গেছে বলে ভুলে গিয়েছেন।

411

বেফাঁস মন্তব্য করে সপ্তাহভর ডিফেন্স খেলে ফের একবার অ্যাটাকিং মোডে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর ‘গুলি করে মারা উচিত’ মন্তব্যকে সমালোচনা করায় এবার তৃণমূল ও বাম নেতাদের একযোগে কটাক্ষ করলেন তিনি। বললেন, ‘দাঁত পড়ে গেলে যেমন মানুষ মাংস খাওয়ার বিরোধিতা করতে শুরু করে। তেমনই আমার মন্তব্যের বিরোধিতা করছেন বিরোধী নেতারা।’

এদিন দিলীপবাবু বলেন, ‘আমি বাপের ব্যাটা। আমি বলছি লিখে রাখুন। দেশের সম্পত্তি কেউ ধ্বংস করতে এলে গুলি করে মারব। সাধারণ মানুষের করের টাকায় কেনা সম্পত্তি ভাঙলে মারার অধিকার সরকারের আছে।’

এর পরই তৃণমূল সরকারের মন্ত্রীদের আক্রমণ করেন দিলীপবাবু। বলেন, ‘সিদ্ধার্থ শংকর রায়ের জমানায় ওরা কী করেছিলেন? এখন রক্ত ঠান্ডা হয়ে গেছে বলে ভুলে গিয়েছেন। জেল থেকে তরতাজা ছেলেদের ছেড়ে দিয়ে বলতেন, বাড়ি যা। তার পর পিছন থেকে গুলি করে মেরে বলেছেন ওরা নকশাল। এখন দাঁত পড়ে গিয়েছে বলে মাংস খাওয়ার বিরোধিতা করছেন।’

বাদ যাননি বামেরাও। এদিন মরিচঝাঁপির কথা মনে করান দিলীপবাবু। বলেন, নিঃসঙ্গ দ্বীপে প্রাণ বাঁচাতে আশ্রয় নিয়েছিলেন হিন্দু উদ্বাস্তুরা। তাদের নৌকায় করে তুলে নিয়ে গিয়ে সমুদ্রে হাঙরের – কুমিরের মুখে দিয়ে এসেছিল বাম সরকার।

বলে রাখি, গত রবিবার নদিয়ায় এক জনসভায় দিলীপ ঘোষ সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুরকারীদের গুলি করে মারার নিদান দিয়েছিলেন। দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্যের বিরোধিতা করে রাজনৈতিক দলগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here