গাড়ির মতো প্লেনেও হর্ন থাকে, কখন তা ব্যবহার করেন পাইলট?

38

গাড়ি বা ট্রেনের হর্নের কথা শুনেছেন। কিন্তু কখনও প্লেনে হর্নের কথা শুনেছেন? কিংবা প্লেনের হর্নের শব্দ কেমন জানেন? প্রশ্ন জাগতেই পারে, প্লেনেরও আবার হর্ন! আকাশে তো বিমানজটের বালাই নেই, তাহলে আবার হর্নের প্রয়োজন কেন? অবশ্যেই প্রয়োজন আছে এবং এই হর্নের যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ কাজও আছে।

প্লেনেরও হর্ন আছে, এটা না হয় জানা গেল। কিন্তু তা বলে আকাশে হর্ন বাজানো হয়? এখানেও প্রশ্ন জাগতে পারে, তাহলে নিশ্চয়ই কোনও প্লেন কাছাকাছি চলে এলে সতর্ক করতেই সেই হর্ন বাজানো হয়! কিংবা পাখির কবলে পড়ে যাতে বিমান দুর্ঘটনা না হয় সেজন্য বাজানো হয়?না, তা নয়। আসল বিষয়টা হল, প্লেনের হর্ন থাকলেও তা কিন্তু আকাশে উড্ডয়ন অবস্থায় ব্যবহার করা হয় না। বিমানচালককে এই হর্ন বাজানোর অনুমতি দেওয়া হয় না। বলা ভাল, উড্ডয়নের সময় প্লেনের এই হর্ন নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়। তবে বিমানবন্দরে প্লেন থাকাকালীনই এই হর্ন ব্যবহার করা হয়। একমাত্র গ্রাউন্ড ইঞ্জিনিয়াররা যখন ককপিটে থাকেন, তখন গ্রাউন্ড স্টাফদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য এই হর্ন ব্যবহার করা হয়। সামনের ল্যান্ডিং গিয়ারের কাছে এই হর্ন থাকে।

প্লেনের ককপিটে যে ইনস্ট্রুমেন্ট প্যানেল থাকে সেখানে ‘জিএনডি’ লেখা একটা বোতাম থাকে। এই বোতাম টিপলেই হর্ন বাজে। অনেকটা জাহাজ বা স্টিমারের হর্নের মতো আওয়াজ। তবে প্লেনে কোনও আপৎকালীন পরিস্থিতি তৈরি হলে সতর্কতামূলক সঙ্কেত হিসেবে এই হর্ন বাজানো হয়।

হর্নের আওয়াজেরও আবার ধরন আছে। এই নানা ধরনের হর্ন শুধু ইঞ্জিনিয়ারদের জন্যই। বিমানের কোথায় কোন সমস্যা হচ্ছে, বা কী সমস্যা হচ্ছে, হর্নের ধরন শুনে তারা বুঝতে পারেন। এক একটি হর্নের সঙ্গে এক এক রকম আলোও লাগানো আছে। এ ছাড়া কেবিনে কোনও সমস্যা হলে তার জন্য আলাদা হর্ন আছে।

তবে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন প্লেনের ককপিটেও হর্ন থাকে। নানা রঙের আলোর মাধ্যমে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে যোগাযোগ করেন পাইলটরা। ওই নানা রঙের আলোগুলোকে প্রযুক্তিগতভাবে প্লেনের হর্ন বলাও হয়ে থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here